সারাদেশে বজ্রপাতে ১৪ জনের মৃত্যু

31

দেশের বিভিন্ন স্থানে বজ্রপাতে ১৪ জনের মৃত্যু হয়েছে এবং ১৩ জন আহত হয়েছে। নোয়াখালি জেলার পৌর এলাকার লক্ষ্মীনারায়ণপুর গ্রামের নোয়াখালী জিলা স্কুলের দিবা-ক শাখার ৫ম শ্রেণীর ছাত্র ইকবাল হাসনাত পিয়াল বজ্রপাতে মারা গেছেন। সে লক্ষ্মীনারায়ণপুর গ্রামের মো. সোহেল রানা জগলু ও পারভিন আক্তারের বড় ছেলে। বাড়ির পাশে খোলা মাঠে ক্রিকেট খেলা শেষে বাড়ি ফেরা সময় বজ্রপাতে তার মৃত্যু হয়।
সিরাজগঞ্জ সংবাদদাতা জানান, সিরাজগঞ্জের কাজিপুর, শাহজাদপুর ও কামারখন্দে বজ্রপাতে পিতা-পুত্রসহ ৫ জনের মর্মান্তিক মৃত্যু হয়েছে।
নিহতরা হলেন-কাজিপুরের চরাঞ্চল ডিগ্রি তেকানী গ্রামের মৃত পারেশ মন্ডলের ছেলে শামছুল মন্ডল (৫৫) ও তার ছেলে আরমান (১৪), শাহজাদপুর উপজেলা ছয়আনি গ্রামের ফারুক খানের ছেলে নাবিল (১৭) ও রাশেদুল ইসলাম ছেলে পলিন (১৫) এবং কামারখন্দের পেস্তক কুড়া গ্রামের মৃত আহের মন্ডলের ছেলে কাদের হোসেন (৩৭)।
মাগুরা সংবাদদাতা জানান, মাগুরা সদর অক্কুর পাড়া ও রায়গ্রাম এবং শালিখা উপজেলার বুনাগাতী গ্রামে বজ্রপাতে তিনজনের মৃত্যু হয়েছে।
এরা হলেন- অক্কুর পাড়ার ভ্যানচালক শামীম, ব্লুগ্রামের আব্দুর রশিদের ছেলে আলম ও জয়পুরহাটের মনপুরা এলাকার আলম মিয়ার ছেলে মেহেদী।
ব্রাহ্মণবাড়িয়া সংবাদদাতা জানান, জেলার আখাউড়ায় বজ্রপাতে আব্দুর রহিম (৪০) নামে এক কৃষকের মৃত্যু হয়েছে। রহিমের বাড়ি মৌলভীবাজার জেলায় বলে আখাউড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোশাররফ হোসেন তরফদার জানিয়েছেন।
নওগাঁ সংবাদদাতা জানান, জেলার সাপাহারে বজ্রপাতে গৃহবধূ সোনাভান (২৪) নামে একজনের মৃত্যু হয়েছে। আহতরা হলেন- সোনাভানের স্বামী রুবেল হোসেন (২৮), সালেহা বিবি (৪২) ও শিশু রাজু (১২)। আহতদের সাপাহার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।
গাজীপুর সংবাদদাতা জানান, জেলার কালিয়াকৈর উপজেলার মাটিকাটা এলাকায় বজ্রপাতে জাফরুল ইসলাম (২০) নামে পোশাক কারখানার এক চেকম্যানের মৃত্যু হয়েছে। এ ঘটনায় নারীসহ পাঁচ শ্রমিক আহত হয়েছেন।
রাঙ্গামাটি সংবাদদাতা জানান, বাঘাইছড়ি উপজেলায় বজ্রপাতে মনছুরা বেগম (৩৫) নামের এক নারীর মৃত্যু হয়েছে। মনছুরা বেগম বাঘাইছড়ি উপজেলার মুসলিম ব্লক এলাকার বাসিন্দা বলে পুলিশ জানায়।
সুনামগঞ্জ সংবাদদাতা জানান, জেলার সদর উপজেলার সুরমা ইউনিয়নের সৈয়দপুর গ্রামে বজ্রপাতে লিটন মিয়া (৩০) নামে এক কৃষকের মৃত্যু হয়েছে।
কৃষক লিটন সদর উপজেলার সুরমা ইউনিয়নের সৈয়দপুর গ্রামের মুক্তিযোদ্ধা শাহজাহান মিয়ার ছেলে। সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালে আবাসিক চিকিৎসক ডা. রফিকুল ইসলাম তার মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

দেশরিভিউ/শিমুল

SHARE