সার্ভারে ট্রেনের টিকেট ব্লক, বুকিং সহকারীর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে দুদকের সুপারিশ

239

।।দেশরিভিউ, খুলনা।।
যাত্রীদের নিকট ট্রেনের টিকেট বিক্রয় না করে কালোবাজারির মাধ্যমে বিক্রয় করে গ্রাহক হয়রানির অভিযোগে খুলনা রেলওয়ে স্টেশনে অভিযান পরিচালনা করেছে দুদক।

সমন্বিত জেলা কার্যালয়, খুলনা’র উপপরিচালক মোঃ নাজমুল হাসানের নেতৃত্বে আজ এ অভিযান পরিচালিত হয়।

সরেজমিন অভিযানে গিয়ে দুদক দেখে, উক্ত স্টেশনে সিএনএস (কম্পিউটার নেটওয়ার্ক সিস্টেম) সার্ভারের মাধ্যমে ভিআইপি টিকেটের কথা বলে ঈদ উপলক্ষে যে বিশেষ কোচ/বগি সংযোজন করা হয়েছে সেগুলোর সিটসমূহও ব্লক করে রাখা হয়েছে।

আগামী ১৬-০৮-২০১৯ খ্রি. তারিখে ঢাকাগামী চিত্রা এক্সপ্রেসে স্নিগ্ধার ১৪ টি, এসি সিট ৮ টি এবং শোভন চেয়ারের ১৪০ টি সিট অটো ব্লক অবস্থায় দেখতে পায় দুদক টিম। ভিআইপিগণ সাধারনত শোভন চেয়ার শ্রেণীর টিকেট ক্রয় না করলেও এই ১৪০টি সিট কেন ব্লক করে রাখা হয়েছে তার সদুত্তর স্টেশন কর্তৃপক্ষ দিতে পারেননি। ফলে পরবর্তীতে কালোবাজারে বিক্রয়ের উদ্দেশ্যেই এসব সিট ব্লক করে রাখা হয়েছে দুদক টিমের নিকট এরূপ প্রতীয়মান হয়।

পরবর্তীতে দুদক টিমের উপস্থিতিতে উপরোল্লিখিত সিটসহ ঈদের সবগুলো ট্রেনের ব্লককৃত প্রচুর সিট সাধারণ যাত্রীর নিকট বিক্রয়ের উদ্দেশ্যে উন্মুক্ত করা হয়।

এ ঘটনায় স্টেশনের প্রধান বুকিং সহকারী মেহেদী হাসানকে বিভাগীয় ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য সুপারিশ করেছে দুদক টিম।

SHARE