স্ত্রীর আরামের জন্য সারারাত ঠাঁই দাঁড়িয়ে ছিলেন স্বামী

89

 
ফেসবুক থেকে সংগ্রহ:
ছবিটায় একটু খেয়াল করলেই বুঝা যায় একজন সুসাস্থ্যবান পুরুষ দাঁড়িয়ে আছে,পাশেই সিটে একজন আপাদমস্তক পর্দাসীন নারী ঘুমিয়ে আছে।
ময়মনসিংহ টু চট্টগ্রাম,সারারাতের ট্রেন ভ্রমণ।এই ব্যাক্তি দুই পায়ে সারারাত দাঁড়িয়ে ছিল।এমন না যে সে সিট পাইনি, সে দাঁড়ায়ে ছিল কারণ তার সিটে তাঁর স্ত্রী ঘুমিয়ে ছিল।

এমনও না যে তার বউ অসুস্থ,শুধু বউ একটু আরাম করে ঘুমাবে বলেই লোকটা সারারাত দাঁড়ায়ে ছিল। মাঝে মাঝে ট্রেনের ঝাঁকুনিতে বউ এর ঘুম ভেঙে যায়,লোকটা হাঁটু গেড়ে বউ এর পাশে বসে,মাথায় হাত রেখে কানের কাছে মুখ নিয়ে বার বার জিজ্ঞেস করে কিছু খাবে না,কোন অসুবিধা হচ্ছে কিনা।

আমি বললাম ভাই আমার পাশে বসেন। উনি বললেন..
“ভাই,আমি বসে গেলে আমার জায়গায় অন্য কেও দাঁড়িয়ে থাকবে, আমার বউ অগোছালো হয়ে ঘুমাচ্ছে, সে কমফোর্ট ফীল করবে না”

নারীটা এখানে যতই স্বার্থপর, হৃদয়হীনা হোক না কেন পুরুষটার মহানুভবতাকে খাটো করে দেখার অবকাশ নেই।
নারী নির্যাতনের হাজারো সংবাদের পাশে কোন নারীর জন্য স্বামীর সারারাত দাঁড়ায়ে থাকাটা সৌভাগ্যই বটে। এই সম্মান,ভালবাসা টাকা দিয়ে উপহার দেয়া যায় না। এই ভালবাসা সব নারীর কপালে জুটেও না।

রাসূলুল্লাহ (সা.) ইরশাদ করেন, ‘তোমাদের মধ্যে তারাই উত্তম যারা তাদের স্ত্রীদের জন্য উত্তম। আর আমি আমার স্ত্রীদের জন্য তোমাদের মধ্যে সর্বোত্তম ব্যক্তি। ’ -তিরমিজি

– নারী নির্যাতন নয়, নারীকে সম্মান করা প্রতিটা পুরুষের দায়িত্ব। ভালো বিষয় গুলো ছড়িয়ে দেওয়া হোক।

SHARE