ভয়াবহ করোনায় ১১ হাজার ছাড়াল মৃত্যু, রেকর্ড ইতালিতে

115

এক বিভিষিকাময় সময় পার করছে বিশ্ব। সাড়ি সাড়ি লাশ। অযত্নে অবহেলায় পরে আছে মর্গে। চিকিৎসকরা ব্যক্তিগত সুরক্ষাসামগ্রীর জন্য আহাজারি করছেন। এমন নজিরবিহীন সংকট এখন কোনো একটি দেশ বা জনপদে নয়, বহু দেশে; কার্যত বিশ্বব্যাপী। অভিনব এই সংকটের কারণ- নভেল করোনাভাইরাস। শনিবার (২১ মার্চ) সকাল পর্যন্ত একদিনে ১৩৩৭ জনের প্রাণহানি ঘটেছে। এতে মোট মৃতের সংখ্যা ১১ হাজার ৩৮৫ জনে পৌঁছেছে। আর সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৯১ হাজার ৫৩৩ জন।করোনাভাইরাস বৈশ্বিক মহামারি হয়ে যেভাবে সবকিছু অচল করে ফেলেছে, তাতে বিশ্ব একটি অর্থনৈতিক মন্দার দুয়ারে পৌঁছে গেছে বলে সতর্ক করে দিয়েছেন জাতিসংঘ মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেস। ধনী দেশগুলোকে

সুনির্দিষ্ট লক্ষ্য নিয়ে সমন্বিতভাবে উদ্ভাবনী কর্মপন্থা ঠিক করে কাজে নামার তাগিদ দিয়ে তিনি বলেছেন, ‘আমরা আজ এমন এক নজিরবিহীন পরিস্থিতির মুখোমুখি হয়েছি, যখন সাধারণ কৌশল কোনো কাজে আসবে না।’জাতিসংঘ মহাসচিব বলেন, ‘আমাদের সামনে অপেক্ষা করছে এক বিশ্বমন্দা, যার মাত্রা হয়তো অতীতের সব রেকর্ড ছাড়িয়ে যাবে।’ উন্নত দেশগুলো এখন আফ্রিকা ও উন্নয়নশীল দেশগুলোর পাশে দাঁড়াতে না পারলে তা লাখ লাখ মানুষের মৃত্যুর মতো ভয়াবহ পরিণতি ডেকে আনতে পারে বলে হুঁশিয়ার করেছেন তিনি। জার্মানির চ্যান্সেলর অ্যাঙ্গেলা মেরকেলও করোনাভাইরাস মহামারিকে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর বিশ্বের জন্য সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ হিসেবে দেখছেন।চীনের পর সবচেয়ে বেশি লোকের মৃত্যু হয়েছে ইতালিতে। দেশটিতে একদিনেই ৬২৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। এতে মোট মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৪ হাজার ৩২ জনে।

SHARE