করোনা ঠেকাতে বন্ধ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, সমুদ্র সৈকতে মানুষের ঢল!

299

চীন থেকে ভয়াবহ আকারে ছড়ানো করোনাভাইরাস ভারতীয় উপমহাদেশেও বিস্তার লাভ করছে। করোনার প্রকোপ ঠেকাতে এ অঞ্চলের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। তবে এ কার্যকারিতা নিয়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে।

গণজমায়েত বন্ধ করতে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ করা হলেও মানুষ এটিকে ছুটি কাটানোর উপলক্ষ্য হিসেবে বেছে নিয়েছেন। ফলে ভিড় বাড়ছে পর্যটন কেন্দ্রগুলোতে। পাকিস্তানের সিন্ধু প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী মুরাদ আলী শাহ এ তথ্য প্রকাশ করে হতাশা ব্যক্ত করেছেন।

তিনি বলেছেন, রাজ্যকে করোনাভাইরাস থেকে সুরক্ষিত রাখতে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ করা হয়েছে। তবে মানুষ এখন সমুদ্র সৈকতে ভিড় করতে শুরু করেছেন। নিউজ অ্যান্ড ব্লগ ডট কম এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।

করাচিতে এক সংবাদ সম্মেলনে মুরাদ আলী শাহ বলেছেন, আমরা করোনার বিস্তার ঠেকাতে স্কুল কলেজ বন্ধ করেছি। কিন্তু এ ‍সুযোগে মানুষ সমুদ্র সৈকত দেখতে আগ্রহী হয়ে উঠেছেন। তিনি বলেন, আমরা সবকিছু বন্ধ করিনি। এই কঠিন পরিস্থিতি মানুষের ঘরে অবস্থান করা জরুরি।

সিন্ধুর মূখ্যমন্ত্রী বলেন, রাজ্যে একদিনের একশ’ এর অধিক করোনা আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়েছে। এর দ্রুত বিস্তার ঠেকানো যাচ্ছে। পরিস্থিতি উদ্বেগজনক হওয়ায় সবার সুরক্ষিত থাকতে ঘরে থাকা জরুরি।

মুরাদ আলী শাহ বলেন, মানুষের প্রয়োজন ছাড়া ঘরের বাইরে বের হওয়া কোনভাবেই মেনে নেয়া হবে না। সেটি করলে সরকার কঠোর ব্যবস্থা নেবে বলেও হুশিয়ারি উচ্চারণ করেন তিনি।

SHARE