বুধবার, অক্টোবর ৪, ২০২৩

‘খাদ্য ঘাটতির’ তকমা ঘুচিয়ে দেশ চাল মাছ মাংস ডিমে স্বয়ংসম্পূর্ণ: কৃষিমন্ত্রী

কৃষিমন্ত্রী ড. আব্দুর রাজ্জাক বলেছেন, বাংলাদেশের কৃষি উৎপাদনের সাফল্য আজ সারা বিশ্বের জন্য উদাহরণ। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বর্তমান সরকারের কৃষিবান্ধব নীতির কল্যাণে ফসলের উৎপাদন ধারাবাহিকভাবে বেড়েছে। তার নেতৃত্বের জাদুবলেই ‘খাদ্য ঘাটতির দেশের’ তকমা ঘুচিয়ে দেশ আজ চাল, মাছ, মাংস ও ডিমে স্বয়ংসম্পূর্ণ হয়েছে। ২০২৫ সালের মধ্যে ভোজ্যতেলের চাহিদারও অর্ধেক দেশে উৎপাদিত হবে।

বৃহস্পতিবার (৭ সেপ্টেম্বর) উজবেকিস্তানের সমরকন্দে জাতিসংঘের খাদ্য ও কৃষি সংস্থার মধ্য এশিয়ার সদস্য দেশগুলোর খাদ্য নিরাপত্তার বর্তমান পরিস্থিতি ও করণীয় বিষয়ে আয়োজিত ‘ইন্টারন্যাশনাল কনফারেন্স অন ফুড সিকিউরিটিতে’ দেওয়া বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

কৃষি মন্ত্রণালয় থেকে পাঠানো সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

ড. আব্দুর রাজ্জাক বলেন, ‘দেশের কৃষি আজ শক্তিশালী অবস্থানে রয়েছে। বিভিন্ন বৈরি পরিবেশে খাপ খাওয়ানোর সক্ষমতা ও ঘাতসহনশীলতা অর্জন করেছে।’

দেশে উৎপাদিত খাদ্যের একটি বিরাট অংশ অপচয় ও নষ্ট হয় উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, ‘বর্তমানে এটি আমাদের উদ্বেগের বিষয়। আমরা অপচয় ও নষ্টের পরিমাণ কমিয়ে আনতে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে কাজ করছি।’

তিনি বলেন, ‘খাদ্য নিরাপত্তার জন্য বিভিন্ন দেশের মধ্যে আন্তর্জাতিক সহযোগিতার পাশাপাশি আঞ্চলিক সহযোগিতাও বাড়ানো প্রয়োজন। একইসঙ্গে, প্রযুক্তি ও জ্ঞানের বিনিময় দরকার।’

দুই দিনব্যাপী (৭-৮ সেপ্টেম্বর) এই সম্মেলনে মধ্য এশিয়া ও ইউরোপের প্রায় ২০টি দেশের কৃষিমন্ত্রী এবং বিভিন্ন সংস্থার প্রতিনিধিরা অংশগ্রহণ করেন।

সর্বশেষ