চট্টগ্রামেও এক নারীর সাথে নেশাগ্রস্ত নোবেলের লঙ্কাকান্ড (ভিডিও)

194


চট্টগ্রাম প্রতিনিধি, দেশরিভিউ।।
বান্দরবানের পর এবার চট্টগ্রামেও মাইনুল আহসান নোবেলের উদ্ভট আচরনের অভিযোগ উঠেছে। এক নারীর সাথে চট্টগ্রামের রাস্তায় নোবেলের লঙ্কাকান্ডের প্রমানও মিলেছে এমন একটি ভিডিওতে। চট্টগ্রামের পাহাড়তলী থানার সেগুনবাগান এলাকায় এক নারীর সাথে সারেগামাপা খ্যাত গায়ক নোবেলকে বেসামাল অবস্থায় তর্কে লিপ্ত হওয়ার এমন একটি ভিডিও দেশরিভিউ ডট কমের হাতে এসেছে।

জানা গেছে, গত ২৮শে আগস্ট সকাল ১১টার দিকে নগরীর পাহাড়তলী থানার সেগুনবাগান এলাকায় ব্যাটারি চালিত একটি রিক্সায় বসে নোবেল এক নারীর সাথে তর্কে লিপ্ত হয়। স্থানীয়রা জানান, এসময় নোবেলকে অনেকটা নেশাগ্রস্থ ও বেসামাল অবস্থায় ঐ নারীর সাথে উদ্ভট আচরন করতে দেখা যায়।
স্থানীয় প্রত্যক্ষদর্শীরা দেশরিভিউ প্রতিনিধিকে বলেন, উভয়ের কথাবার্তা শুনে মনে হয়েছে ঐ নারী নোবেলের পূর্বপরিচিত। রাস্তার উপর দুজনে বেশ কিছু সময় বাদানুবাদে লিপ্ত ছিল। বাদানুবাদের একপর্যায়ে নোবেল ক্ষিপ্ত হয়ে নিজের হাতে থাকা মোবাইল ফোন রাস্তায় ছুঁড়ে ফেলে দেন। এর একটু পরেই নোবেলের সাথে থাকা নারী রাস্তার পাশে একটি বিকাশ পয়েন্টের দোকানে গিয়ে ৫ হাজার টাকা উত্তোলন করে নোবেলের হাতে দেন। টাকা হাতে পেয়ে নোবেল শান্ত হওয়ার পর দু’জনে একসাথে ব্যাটারি-রিকশাযোগে স্থান ত্যাগ করে।

এর আগে বান্দরবানে এক নারী বান্ধবীকে নিয়ে ঘুরতে গিয়ে ফেসবুকে একটি ছবি পোষ্ট করেন নোবেল। ছবিতে নোবেল ক্যাপশনে লেখেন, ‘গাঁজার নৌকা পাহাড়তলী যায়। ও মিরাবই।’ এই ছবি দেখে নোবেলের সমালোচনা করেছেন বহু নেটিজেন। ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন নোবেলের খোদ স্ত্রী মেহরুবা সালসাবিল মাহমুদও। তিনি একটি ফেসবুক পোস্ট
নোবেলের বিরুদ্ধে মাদক গ্রহন এবং পরকিয়ার অভিযোগও তুলেন। বান্দরবানে থাকাকালে নোবেলের বিরুদ্ধে হোটেলে ভাংচুর এবং অন্য পর্যটকদের মারধরের অভিযোগ গণমাধ্যমে উঠে আসে। এছাড়াও বান্দরবানের বিভিন্ন দোকানে গিয়ে উদ্ভট আচরণ করার ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ব্যাপক ভাবে ভাইরাল হয়।

SHARE