মঙ্গলবার, মার্চ ৫, ২০২৪

পাকিস্তানের আনুষ্ঠানিকভাবে ক্ষমা চাওয়া উচিত: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

শ্রীলঙ্কার রাষ্ট্রপতি রনিল বিক্রমাসিংহ তার দেশের অর্থনৈতিক পুনরুদ্ধারের জন্য বাংলাদেশ সময়োপযোগী সহায়তার জন্য বাংলাদেশ সরকার এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন।

কলম্বোয় দেশটির রাষ্ট্রপতির সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে গেলে বিক্রমাসিংহ এ কৃতজ্ঞতা জানান।

ড. মোমেন “স্বাধীনতা প্যারেডে” যোগদান করেন। সেখানে কুচকাওয়াজ পরিদর্শন করেন শ্রীলঙ্কার রাষ্ট্রপতি।

এর আগে দ্বিপাক্ষিক বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।শ্রীলঙ্কার পররাষ্ট্রমন্ত্রী এম. আলী সাবরি এবং ড. মোমেন উভয়েই চলমান অগ্রাধিকারমূলক বাণিজ্য আলোচনা, ব্যবসা ও বিনিয়োগে সহযোগিতা, পর্যটন এবং যোগাযোগ সহযোগিতার দ্রুত বাস্তবায়নের প্রয়োজনীয়তার উপর জোর দেন।

ড. মোমেন জনগণের মধ্যে যোগাযোগ এবং ব্যবসা-বাণিজ্যের উন্নয়নের জন্য ঢাকা-কলম্বো বিমান ভাড়া কমানোর জন্য শ্রীলঙ্কার প্রতিপক্ষকে অনুরোধ করেন।

তিনি বর্ধিত শিপিং সংযোগের জন্য বাংলাদেশের ফিডার ভেসেলের জন্য অগ্রাধিকার বার্থিংয়ের প্রয়োজনীয়তার উপর জোর দেন।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. মোমেন নেপালের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. বিমলা রাই পাউডিয়ালের সঙ্গে সাক্ষাত করেন যেখানে তারা পারস্পরিক স্বার্থসংশ্লিষ্ট বিষয়ে আলোচনা করেন। বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছেন পাকিস্তানের পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী হিনা রব্বানি খার। তিনি প্রতিমন্ত্রীর কাছে পুনর্ব্যক্ত করেন যে ১৯৭১ সালে নিরস্ত্র বাঙালিদের উপর সংঘটিত নৃশংসতার জন্য পাকিস্তানের আনুষ্ঠানিকভাবে ক্ষমা চাওয়া উচিত।

সর্বশেষ