সোমবার, এপ্রিল ২২, ২০২৪

ভবনে ছিল না অগ্নিনিরাপত্তা ব্যবস্থা: পিবিআই

শুক্রবার দুপুরে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন পুলিশ ব্যুারো অব ইনভিস্টিগেশনের (পিবিআই) এসপি মিজানুর রহমান শেলী। ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ
পুলিশ ব্যুারো অব ইনভিস্টিগেশনের (পিবিআই) এসপি মিজানুর রহমান শেলী বলেছেন, বেইলি রোডের গ্রিন কজি কটেজ ভবনে পর্যাপ্ত অগ্নিনিরাপত্তা ব্যবস্থা ছিল না। বড় কোনো বিস্ফোরণ নয়, সিলিন্ডার অথবা গ্যাসলাইন থেকে ভবনের ভয়াবহ আগুন ঘটতে পারে।

শুক্রবার সকালে বেইলি রোডের পুড়ে যাওয়া ভবনের সামনে তদন্ত করার সময়ে গণমাধ্যমকে তিনি এসব কথা জানিয়েছেন।

পিবিআই’র এসপি মিজানুর রহমান বলেন, কোন তলা থেকে আগুন লেগেছে, আমরা নির্দিষ্ট করে বলতে পারছি না। প্রত্যক্ষদর্শীরা দ্বিতীয় তলা, কেউবা প্রথম তলার কথা বলেছেন। উপরে আগুন লেগে থাকলে সেখান থেকে উপরেই যাওয়ার কথা। সেক্ষেত্রে নিচ তলা থেকেও হতে পারে। এটা নিশ্চিত করে বলা যাচ্ছে না।

তিনি বলেন, আগুন বিস্ফোরণ থেকে হয়নি। অন্যান্য ঘটনায় দেখেছি বিস্ফোরণ হয়ে দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে, কিন্তু এখানে তেমনটি হয়নি ধারণা করা যায়। এ ভবনের সামনে গ্লাস ফিটিং, ভেতরে যে ধোঁয়া ছিল বের হওয়ার সুযোগ ছিল না। আমাদের লোকজন কাজ করছে, ভেতরে এখনও প্রচুর ধোঁয়া রয়েছে।

তিনি বলেন, ভয়াবহ আগুনে এখন পর্যন্ত পুড়ে মারা গেছে ৪৬ জন। তাদের দেখে মনে হয়েছে বেশিরভাগ মানুষ শ্বাসকষ্টে মারা গেছে। এ থেকে বোঝা যায় ভবনটিতে ভ্যান্টিলেটর ও অগ্নিনিরাপত্তার অভাব ছিল।

এদিকে রাজধানীর বেইলি রোডের বহুতল ভবনে ভয়াবহ আগুনের ঘটনায় এ পর্যন্ত ৪৬ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ ঘটনায় দ্বগ্ধ চিকিৎসাধীন ব্যক্তিরাও শঙ্কামুক্ত নন বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী ডা. সামন্ত লাল সেন।

এর আগে, বৃহস্পতিবার রাত ৯টা ৫০ মিনিটের দিকে রাজধানীর বেইলি রোডে বহুতল একটি ভবনের দ্বিতীয় তলায় ‘কাচ্চি ভাই’ নামের একটি রেস্তোরাঁয় আগুন লাগে। ফায়ার সার্ভিসের ১৩টি ইউনিটের চেষ্টায় রাত ১১টা ৫০ মিনিটে আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে।

সর্বশেষ