রবিবার, এপ্রিল ২১, ২০২৪

‘জীবন’ কানেক্টিভিটি হবে বিটিসিএলের লাইফ লাইন : পলক

ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেছেন, ‘জীবন’ কানেক্টিভিটি হবে বিটিসিএলের লাইফ লাইন। এই একটি প্যাকেজ যা দিয়ে আমরা বিটিসিএলকে লাভজনক প্রতিষ্ঠানে পরিণত করতে পারবো। উচ্চ গতিসম্পন্ন এই প্যাকেজ সারাদেশে ৪ লাখ মানুষের মাঝে দেওয়া হবে। মাত্র ৩০০ টাকায় ৬ এমবিপিএস, ৫০০ টাকায় ১০ এমবিপিএস, এক হাজার টাকায় ২০ এমবিপিএস গতিসম্পন্ন লাইন গ্রাহকদের মাঝে দেওয়া হবে। এরপরও বিটিসিএল লাভের মুখ না দেখলে ভিন্ন ব্যবস্থা নেওয়া হবে। সেবার মান বাড়ালে বিটিসিএলের প্রতি বছর দেড়শো থেকে দুইশো কোটি লোকসান বন্ধ হবে।

রোববার (১১ মার্চ) সকাল সাড়ে ১০টার দিকে মেহেরপুর বিটিসিএলের কার্যালয়ে উচ্চগতিসম্পন্ন ইন্টারনেট জীবন কানেক্টিভিটি উদ্বোধনকালে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।

জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন, টেলিটকের ৪৮ লাখ গ্রাহকের যে সিম অ্যাক্টিভিটি আছে তাদের সমস্য দূর করার জন্য যাদুকরি পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে। ইতোমধ্যে বাংলালিংকের সঙ্গে অ্যাক্টিভ নেটওয়ার্ক শেয়ারিংয়ের মাধ্যমে উচ্চ গতিসম্পন্ন নেটওয়ার্ক পাচ্ছি। সেখানে ইন্টারনেট ভালো পাচ্ছি, ভয়েজ কলও ভালো হচ্ছে। টেলিটকের নেটওয়ার্ক না থাকলেও আমরা সব ধরনের সুবিধা এখান থেকে পাচ্ছি। আগামী স্বাধীনতা দিবসের আগেই পাইলটিং প্রোগ্রাম শেষ হবে। পরবর্তীতে সারাদেশে এটি ছড়িয়ে দেওয়া হবে। প্রথমে বাংলালিংক ও পরে জিপি, রবির সঙ্গে টেলিটকের শেয়ারিং নেটওয়ার্ক চালু করা হবে।

পরে মেহেরপুর ডাকঘরের নতুন ভবন উদ্বোধন করেন মন্ত্রী। এ সময় সেখানে উপস্থিত ছিলেন আইসিটি অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মোস্তফা কামাল, ডাক বিভাগের খুলনা সার্কেলের পোস্ট মাস্টার জেনারেল সামসুল আলম, বিটিসিএলের উপমহাব্যবস্থাপক নারায়ণ চন্দ্র ঘরামী, মেহেরপুরের ভারপ্রাপ্ত জেলা প্রশাসক মো. শামীম হোসেন, পুলিশ সুপার এসএম নাজমুল হক প্রমুখ।

সর্বশেষ