বিয়ের আশ্বাসে যৌন সম্পর্ক; মামুনুলের বিরুদ্ধে জান্নাত আরা ঝর্ণার মামলা

222

দেশরিভিউ সংবাদ:
হেফাজত নেতা মামুনুলের নামে এবার মামলা করলো ঝর্ণা। শুক্রবার নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁও থানায় মামলাটি করেন তিনি।

মামলার এজাহারে বলা হয়েছে, ঝর্নাকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে দুই বছর ধরে ধর্ষণ করেছে মামুনুল। বিভিন্ন হোটেলে এবং রিসোর্টে মাঝে মাঝেই নিয়ে যেত তাকে। চলতি মাসের তিন তারিখে গোনারগাঁও রয়েল রিসোর্টে মামুনুল ও ঝর্ণাকে হাতে নাতে ধরে ফেলে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী যদিও তখন মামুনুল বলেছিলো ঝর্না তার দ্বিতীয় স্ত্রী। 
জান্নাত আরা ঝর্ণা অভিযোগে বলেন, ৩ এপ্রিল সোনারগাঁয়ের রয়্যাল রিসোর্টে ঘোরাঘুরির কথা বলে মামুনুল হক নিয়ে যান। সেখানে অবস্থানকালে কিছু মানুষ আমাদের আটক করে ফেলে। পরে মামুনুল হকের অনুসারীরা রিসোর্টে হামলা করে আমাদের নিয়ে যায়। কিন্তু মামুনুল আমাকে নিজের বাসায় ফিরতে না দিয়ে পরিচিত একজনের বাসায় অবৈধভাবে আটকে রাখেন। কারও সঙ্গে যোগাযোগও করতে দেননি।
উল্লেখ্য, জান্নাত আরা ঝর্ণার বাবা ওলিয়ার রহমান গত ২৬ এপ্রিল মেয়েকে উদ্ধারে পুলিশের সহায়তায় চেয়ে কলাবাগান থানায় সাধারণ ডায়েরী (জিডি) করেন তিনি। পরদিন মোহাম্মদপুরের একটি বাসা থেকে ঝর্নাকে উদ্ধার করে ডিবি পুলিশ। ঝর্না উদ্ধার হওয়ার তিন দিনের মাথায় এই মামলা করলেন।
মামনুল বর্তমানে মোহম্মপুর থানায় করা একটি মামলায় পুলিশের রিমান্ডে আছেন। নারায়গঞ্জ পুলিশ সুপার জানায়, এ মামলায়ও মামুনুলকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আদালতে রিমান্ড আবেদন করবেন তারা।
প্রসঙ্গত, কদিন আগে সোনারগাঁয়ে রয়্যাল রিসোর্টে ঝর্নাসহ ধরা পড়েন মামুনুল হক। মামুনুল তাকে স্ত্রী বলে দাবি করেন। তবে ঝর্নার পরিবার দাবি, মামুনুল তাকে বিয়ে করেননি। বিয়ের প্রলোভবে ব্যবহার করেছেন।

SHARE