সাধাসিধে আয়োজনে ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি শোভনের বিয়ে সম্পন্ন

178


দেশরিভিউ সংবাদ।।
নিরবে প্রেম করেছেন দীর্ঘ দেড় দশকের বেশী সময়। অবশেষে দুই পরিবারের সম্মতিতেই অত্যন্ত সাধাসিধে আয়োজনের মধ্যে বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা পালন করেছেন বাংলাদেশ ছাত্রলীগ সাবেক সভাপতি রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন।

শোভনের ঘনিষ্ট সূত্র বিষয়টি নিশ্চিত করেছে দেশরিভিউ’কে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি মন্ডলির এ সদস্য দেশরিভিউ’কে জানান, শোভনের স্ত্রীর নাম তাহফা সাদিয়া বিথি। শোভনের সাথে তার দীর্ঘ ১৬ বছরের বেশি সময় প্রেমের সম্পর্ক ছিল। সর্বশেষ দুই পরিবারের সম্মতিতেই তারা বিয়ে সম্পন্ন করেছেন। অত্যন্ত ঘরোয়া পরিবেশে দু’জনের বিয়ের অনুষ্ঠান সম্পন্ন হয়েছে। কিছু আত্মীয়স্বজন ছাড়া এ অনুষ্ঠানে তেমন উল্লেখযোগ্য কেউ উপস্থিত ছিল না।

জানা গেছে, শোভন কুড়িগ্রামের ভূরুঙ্গামারীর আওয়ামী লীগ পরিবারের সন্তান। তাঁর দাদা মরহুম শামসুল হক চৌধুরী একজন মুক্তিযোদ্ধা ও মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক। তিনি কুড়িগ্রাম-১ আসনে আওয়ামী লীগ থেকে ১৯৭৩ ও ১৯৭৯ সালে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। ১৯৭৫-পরবর্তী ১৯৭৭ সালে দেশ ও দলের ক্রান্তিলগ্নে আওয়ামী লীগ কুড়িগ্রাম জেলা শাখার সভাপতির দায়িত্ব পালন করেন।
শোভনের বাবা নুরুন্নবী চৌধুরী ১৯৮১ সালে ভূরুঙ্গামারী উপজেলা শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি ও ১৯৯১ সালে থানা যুবলীগের সভাপতি ছিলেন। ২০০১ সালে থানা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক (২০০১-১০) ও ২০১১ সালে পুনরায় নির্বাচিত হয়ে থানা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক পদে আছেন। একই সঙ্গে তিনি নির্বাচিত উপজেলা চেয়ারম্যান। ২০১৮ সালের ৩১ জুলাই বাংলাদেশ ছাত্রলীগের দুই বছর মেয়াদি কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদকে নেতৃত্ব দেওয়ার জন্য সভাপতি হিসাবে নির্বাচিত হয়েছিলেন রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন। তবে এক বছর গড়াতেই নানা ঘটনা অঘটনের মধ্য দিয়ে পদত্যাগে বাধ্য হন ছাত্রলীগের এ সভাপতি।

SHARE