শনিবার, মার্চ ২, ২০২৪

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় বাড়ছে ঠাণ্ডাজনিত রোগের প্রকোপ

ঋতু পরিবর্তনজনিত কারণে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় বাড়ছে ধূলা-বালি ও ঠাণ্ডাজনিত রোগব্যাধির প্রকোপ। প্রতিদিন জেলার বিভিন্ন স্থান থেকে ডায়রিয়া, নিউমোনিয়া ও শ্বাসকষ্ট নিয়ে জেলা সদর হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে আসছের রোগীরা। ইনডোরের পাশাপাশি আউটডোরেও চলছে চিকিৎসা কার্যক্রম।

বহির্বিভাগে প্রতিদিন প্রায় ৩ থেকে ৪ শত রোগী চিকিৎসা নিচ্ছে। আর ভর্তি হচ্ছেন ৬০-৭০ জন নতুন রোগী। এর মধ্যে বর্তমানে ডায়রিয়া ওয়ার্ডে ভর্তি রয়েছেন ৯১ জন রোগী। এছাড়া শ্বাসকষ্ট ও নিউমোনিয়ায় আক্রান্ত হয়ে প্রতিদিন ২৫ থেকে ৩০ জন শিশু ভর্তি হচ্ছে। সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরছেন ৫০ থেকে ৬০ জন।

এদিকে, রোগীর স্বজনরা বলছেন, হাসপাতালে পর্যাপ্ত পানি না সরবরাহ না থাকার পাশাপাশি নোংরা পরিবেশ তাদের দুর্ভোগ আরো বাড়িয়েছে। তবে, হাসপাতালের নার্সরা জানান, আক্রান্তদের হাসপাতাল থেকে প্রয়োজনীয় ওষুধ সরবরাহ করা হচ্ছে। কিন্তু, রোগীর সাথে একাধিক দর্শনার্থী থাকায় তাদের সেবা কার্যক্রম ব্যাহত হচ্ছে। এছাড়া হাসপাতালের ডায়রিয়া ওয়ার্ডে পর্যাপ্ত শয্যা না থাকায় নতুন আরো একটি ওয়ার্ডকে ডায়রিয়া ওয়ার্ডের আওতায় আনা হয়েছে।

বিশুদ্ধ পানীয় জল পান ও শিশুদের ইপিআই টিকা গ্রহনের পরামর্শের পাশাপাশি জনস্বাস্থ্য রক্ষায় প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়ার কথা জানারেন জেলা স্বাস্থ্য বিভাগের এই কর্মকর্তা।
ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা সিভিল সার্জন ডা. মো. একরাম উল্লাহ

ঠাণ্ডাজনিত এসব রোগের প্রকোপ থেকে বাঁচতে চিকিৎসকের পরামর্শের পাশাপাশি সবাইকে আরো সচেতন হতে হবে বলে জানান সংশ্লিষ্টরা।

সর্বশেষ