শনিবার, মার্চ ২, ২০২৪

মিয়ানমার সীমান্তে আবারও গোলাগুলি

বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ির ঘুমধুম-তুমব্রু সীমান্ত এলাকার মিয়ানমার অংশে আবারও গোলাগুলি চলছে। বুধবার ভোর থেকে শুরু হওয়া ব্যাপক গোলাগুলির শব্দে রোহিঙ্গাসহ সীমান্তের বাসিন্দারা আতঙ্কে রয়েছেন।

বান্দরবানের সীমান্ত এলাকায় গোলাগুলি, র‌্যাব সদস্য আহত

বিষয়টি স্বীকার করে বান্দরবান জেলা প্রশাসক (ডিসি) ইয়াছমিন পারভীন তিবরীজি বলেন, ‘ঘুমধুম-তুমব্রু সীমান্তে শূন্যরেখায় মিয়ানমারের বিচ্ছিন্নতাবাদী গ্রুপের মধ্য গোলাগুলি চলছে। সীমান্তে তারা বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করার চেষ্টা করছে। এ বিষয়ে বিস্তারিত পরে জানানো হবে।’

সীমান্তের বাসিন্দারা বলছেন, তুমব্রু সীমান্তের শূন্যরেখায় রোহিঙ্গা সলিডারিটি অরগানাইজেশন (আরএসও) এবং আরাকান রোহিঙ্গা স্যালভেশন আর্মির (আরসা) মধ্যে এই গোলাগুলি চলছে।

তুমব্রু সীমান্তের বাসিন্দা মাহামুদুল হক বলেন, ‘সকালে কাজে বের হওয়ার সময় তুমব্রু সীমান্ত গোলাগুলিতে হঠাৎ কেঁপে ওঠে। প্রথমে ভেবেছি, মিয়ানমারের ছোড়া মর্টারশেল এপারে এসে পড়েছে। কিন্তু পরে নিশ্চিত হয়েছি, শূন্যরেখায় রোহিঙ্গা শিবিরের সীমান্তে দুই সন্ত্রাসী গ্রুপের মধ্যে গোলাগুলি চলছে। এ ঘটনায় হতাহতের খবর পাওয়া যাচ্ছে।’

এ বিষয়ে খোজঁ খবর নেওয়া হচ্ছে জানিয়ে নাইক্ষ্যংছড়ির ঘুমধুম ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর আজিজ বলেন, ‘ভোর থেকে শূন্যরেখা রোহিঙ্গা শিবিরের সীমান্তে গোলাগুলি চলছে। এখনও বন্ধ হয়নি।’

এ বিষয়ে সীমান্তরক্ষী বাহিনী বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ-বিজিবির পক্ষ থেকে কোনও বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

সর্বশেষ