বুধবার, এপ্রিল ১৭, ২০২৪

রাঙামাটিতে অজ্ঞাত রোগে ৫ জনের মৃত্যু, চিকিৎসাসেবা শুরু

রাঙামাটিতে অজ্ঞাত রোগে গত আড়াই মাসে ৫ জনের মৃত্যুর ঘটনায় এবার একই উপসর্গ নিয়ে আক্রান্তদের চিকিৎসা শুরু হয়েছে। এখন পর্যন্ত রাঙামাটির বরকল উপজেলার ভূষণছড়া ইউনিয়নে জ্বর, ব্যথা, বমি, কোনো কোনো ক্ষেত্রে রক্তবমি নিয়ে আক্রান্ত ১২ জনকে চিকিৎসা প্রদান করেছে বিশেষ চিকিৎসক টিম।

বুধবার (২০ মার্চ) ৬ সদস্যের চিকিৎসক টিম চান্দবিঘাট পাড়ায় পৌঁছে তিনটি ভাগে বিভক্ত হয়ে চিকিৎসা কার্যক্রম শুরু করে। তবে ঠিক কোন রোগে স্থানীয়রা আক্রান্ত হচ্ছে তা এখনো চিকিৎসকরা সুনিদিষ্টভাবে নির্ধারণ করতে পারেনি। তবে ধারণা করা হচ্ছে এটি খাবারের কারণে গ্যাস্ট্রোএন্টেরোলজি রোগ হতে পারে।

৬ সদস্যের চিকিৎসক টিমের নেতৃত্ব দিচ্ছে বরকল উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কর্মকর্তা ডা. ম্য ক্যাছিং সাগর।

রাঙামাটির সিভিল সার্জন ডা. নীহার রঞ্জন নন্দী জানিয়েছেন, চিকিৎসক টিক কাজ শুরু করেছে। পুরো গ্রামে ঘরে ঘরে গিয়ে সবাইকে স্ক্যানিং করা হচ্ছে। সবার জন্য প্রয়োজনীয় ওষুধ পাঠানো হয়েছে। আমরা চাইছি যাতে আর কোনো প্রাণহানি না হয়। খাবার থেকে এমন উপসর্গ দেখা দিচ্ছে বলে মনে হচ্ছে, এটাকে আমরা গ্যাস্ট্রোএন্টেরোলজি বলে থাকি। বিস্তারিত চিকিৎসক টিম ফিরলে বলা যাবে।

উল্লেখ্য, জ্বর, বমি, ব্যথা, রক্ত বমি নিয়ে চলতি বছরের ১০ জানুয়ারি থেকে ১৭ মার্চ পর্যন্ত ভূষণছড়া ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ডের চান্দবিঘাট পাড়ায় ৫ জন মারা গেছেন। তাদের মধ্যে প্রথম মৃত্যুর ঘটনা ঘটে চলতি বছরের জানুয়ারি মাসের ১০ তারিখ। ওই দিন পত্ত রঞ্জন চাকমা (২৫) এই রোগে মারা যান। পরে ৭ ফেব্রুয়ারি বিমলেশ্বর চাকমা (৫৫), ২৬ ফেব্রুয়ারি ডালিম কুমার চাকমা (৩৫), ১৫ মার্চ চিত্তি মোহন চাকমা (৬০) এবং সবশেষ ১৭ মার্চ সোনি চাকমা (৮) মারা যান। এদের সবাই একই উপসর্গ নিয়ে মারা যান।

সর্বশেষ