বুধবার, এপ্রিল ১৭, ২০২৪

ইউক্রেনে ৩০ কোটি ডলারের অস্ত্র সহায়তা পাঠাবে যুক্তরাষ্ট্র

ইউক্রেনে ৩০ কোটি ডলার মূল্যের একটি নতুন সামরিক সহায়তা প্যাকেজ পাঠাবে যুক্তরাষ্ট্র। মঙ্গলবার (১২ মার্চ) প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের প্রশাসন এই তথ্য জানিয়েছে। কংগ্রেসে রিপাবলিকান নেতারা ইউক্রেনের জন্য অতিরিক্ত তহবিল আটকে রাখায় কয়েক মাসের মধ্যে প্রথমবারের মতো এই ধরনের পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্স এই খবর জানিয়েছে।

যুদ্ধক্ষেত্রের পরিস্থিতি এবং রিপাবলিকান কট্টরপন্থিরা তহবিল আটকে রাখায় আরও সামরিক সহায়তা পাঠানোর উপায় খুঁজে বের করার চেষ্টা করছে হোয়াইট হাউজ। এরইপ্রেক্ষিতে এই সহায়তা পাঠানোর ঘোষণা দেওয়া হয়েছে।

মার্কিন জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা জ্যাক সুলিভান বলেছেন, পেন্টাগন চুক্তির খরচ থেকে অপ্রত্যাশিত সঞ্চয়ের অর্থায়ন এই প্যাকেজ দেওয়া হচ্ছে। এই অর্থ উচ্চ গতিসম্পন্ন আর্টিলারি রকেট সিস্টেম (হিমার্স) এর জন্য আর্টিলারি রাউন্ড এবং যুদ্ধাস্ত্র ক্রয়ে ব্যবহার করা হবে।

সাংবাদিকদের সুলিভান বলেছেন, এই সহায়তা মাত্র কয়েক সপ্তাহের জন্য ইউক্রেনকে সাহায্য করবে।

সুলিভান বলেন, ‘ইউক্রেনের যুদ্ধক্ষেত্রের চাহিদা মেটাতে এটি যথেষ্টের কাছাকাছি পর্যায়েও নেই। এমনকি এটি ইউক্রেনের গোলাবারুদ ফুরিয়ে যাওয়া রোধেও কোনও ভূমিকা রাখতে পারবে না।’

নতুন অস্ত্র প্যাকেজের খবরটি প্রথম রয়টার্স মঙ্গলবার প্রকাশ করে।

পেন্টাগনের প্রেস সেক্রেটারি মেজর জেনারেল প্যাট রাইডার বলেছেন, প্যাকেজের মধ্যে বিমান বিধ্বংসী ক্ষেপণাস্ত্র এবং আর্টিলারি রাউন্ড রয়েছে। তিনি বলেছিলেন, পেন্টাগন চুক্তির সঞ্চয়ের মাধ্যমে ইউক্রেনে অস্ত্র সরবরাহ করা সম্ভবত এককালীন পরিস্থিতি এবং কিয়েভকে অর্থায়নে কোনও টেকসই উপায় নয়।

সর্বশেষ